1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৩:১৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
গোপালগঞ্জে বশেমুরবিপ্রবিতে নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মিছিল দুর্নীতি দমনে সরকারের জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জে হেলমেট বিহীন চালকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার নির্দেশ- জেলা প্রশাসক গোপালগঞ্জে কোটা বিরোধীদের শ্লোগানের প্রতিবাদে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটন এর বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলায় বিএমইউজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ আদমদীঘিতে পোনা মাছ বাজরের দুরাবস্থা ; প্রায় এক হাজার ব্যবসায়ী বেকার গোপালগঞ্জে টুঙ্গিপাড়ায় চাঁদা আদায় করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক -০১ নড়াগাতীতে সড়কের সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ!স’মিল থেকে উদ্ধার স্থানীয় সাংসদের হস্তক্ষেপ কামনা তানোরে বিচারের বাণী নিভৃতে কাঁদছে নাদিয়া বোর্ডের নির্বাহী সভা বৃহস্পতিবার

গোপালগঞ্জে পলাতক হত্যা মামলার আসামি মিল্টনকে গ্রেফতার করছে- থানা পুলিশ”

  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪
  • ৯২ ০৫ বার পঠিত

লুৎফর সিকদার, গোপালগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ পলাতক মূল আসামী মিল্টন খান (৪০)কে গ্রেফতার করলো গোপালগঞ্জ সদর থানা পুলিশ”

দীর্ঘ প্রচেষ্টা এবং অক্লান্ত পরিশ্রমে অবশেষে সাফল্য পেল গোপালগঞ্জ সদর থানা পুলিশ।

গ্রেফতার হল আলোচিত ৭৫ বছর বয়সের বৃদ্ধ রণজিৎ রায় হত্যা মামলার মূল আসামী মিল্টন খান (৪০)।

  গত ১২/১০/২০২৩ তারিখে রাত্র অনুমান ২০:৩০ ঘটিকায় গোপালগঞ্জ সদর থানাধীন মানিকহার মালোপাড়ায় খুন হয় রণজিৎ রায় (৭৫) নামের একজন বয়স্ক ব্যক্তি।

চোখে টর্চ লাইটের আলো পড়া নিয়ে সাধারন তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আপন দুই ভাই আসামী মিল্টন খান এবং শিপন খান  নৃশংসভাবে হত্যা করে রণজিৎ রায়কে। এই ঘটনায় গত ১৩/১০/২০২৩ খ্রিঃ তারিখে গোপালগঞ্জ সদর থানার মামলা নং- ১৩, তারিখ- ১৩/১০/২০২৩ খ্রিঃ, ধারা-১৪৩/৩২৩/৩২৫/৩২৬/৩০৭/ ৩০২/৫০৬ পেনাল কোড মামলা রুজু হয়।

        মৃত রণজিৎ রায় স্থানীয় একটি মন্দিরের পূজারী ছিলেন। আর এই হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ছিল ২০২৩ সালের দূর্গাপূর্জার মাত্র কয়েকদিন পূর্বে।
এই নিয়ে স্থানীয়দের মনে বেশ ভীতি ছিল। হত্যাকান্ডের মূল আসামী মিল্টন খাঁন (৪০) একজন পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী এবং ডাকাত চক্রের একজন সক্রিয় সদস্য। এই মামলার পূর্বে তার বিরুদ্ধে গোপালগঞ্জ সদর থানায় মাদক ও ডাকাতির প্রস্তুতি সহ মোট ১৮টি মামলা রয়েছে।
হত্যাকান্ডের ঘটনার পরপরই আসামী মিল্টন খান এবং শিপন খান পালিয়ে যায়।
বিভিন্ন তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমেও তাদের অবস্থান শনাক্ত করা সম্ভব হয় নাই। এমনটি আসামীরা মোবাইল ব্যবহারও বন্ধ করে দেয়।
পরবর্তীতে ২নং আসামী শিপন খান মহামান্য হাইকোর্ট থেকে জামিন নেয়। আসামী মিল্টন খান পেশাদার অপরাধী হওয়ায় কোনভাবেই তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছিল না।
এর আগেও বেশ কয়েকবার অভিযান পরিচালনা করেও আসামী মিল্টন খানকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয় নাই।

গত ২৯/০২/২০২৪ খ্রিঃ তারিখ গোপালগঞ্জ জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব আল বেলী আফিফা মহোদয়ের দিক নির্দেশনায় এবং অফিসার ইনচার্জ জনাব মোহাম্মদ আনিচুর রহমান এর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে গোপালগঞ্জ সদর থানাধীন পুখুরিয়া এলাকা হতে ১৯:৩০ ঘটিকায় গোপালগঞ্জ সদর থানার একটি চৌকস টিম  আলোচিত “রণজিৎ রায়” হত্যা মামলার ” মূল আসামী ” মিন্টন খান”কে গ্রেফতার করে।
মিল্টন খানের গ্রেফতারের সংবাদে স্থানীয় জনমনে স্বস্তি ফিরে আসছে।
হয়ত মৃত রণজিৎ রায়ের আত্মাও আজ শান্তি পাবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ