1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৪:২৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
গোপালগঞ্জে বশেমুরবিপ্রবিতে নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মিছিল দুর্নীতি দমনে সরকারের জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জে হেলমেট বিহীন চালকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার নির্দেশ- জেলা প্রশাসক গোপালগঞ্জে কোটা বিরোধীদের শ্লোগানের প্রতিবাদে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটন এর বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলায় বিএমইউজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ আদমদীঘিতে পোনা মাছ বাজরের দুরাবস্থা ; প্রায় এক হাজার ব্যবসায়ী বেকার গোপালগঞ্জে টুঙ্গিপাড়ায় চাঁদা আদায় করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক -০১ নড়াগাতীতে সড়কের সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ!স’মিল থেকে উদ্ধার স্থানীয় সাংসদের হস্তক্ষেপ কামনা তানোরে বিচারের বাণী নিভৃতে কাঁদছে নাদিয়া বোর্ডের নির্বাহী সভা বৃহস্পতিবার

পঞ্চগড়ে নিহত যুবকের পাচ মাস পর মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১০ জুলাই, ২০২৩
  • ৬৩ ০৫ বার পঠিত

মোঃ রেজাউল করিম আলম, পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি -ঃ- গত ৩ মার্চ পঞ্চগড়ে আহমদিয়া অনুসারী কাদিয়ানীদের জলসা বন্ধের দাবিতে মুসল্লিদের বিক্ষোভে সংঘর্ষের ঘটনায় পাঁচ মাসের মাথায় নিহত আরিফুর রহমান আরিফের (৩০) মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করেছে পুলিশ।

সোমবার (১০ জুলাই) সকালে পঞ্চগড় পৌর সভার কেন্দ্রীয় গোরস্থান থেকে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে মরদেহটি উত্তোলন করে পুলিশ।

থানা পুলিশ জানায়, ঘটনার পর নিহতের পরিবার কোন অভিযোগ বা মামলা দায়ের না করায় গত ৪ জুন পঞ্চগড় সদর থানার উপ-পরিদর্শক ফরহাদ হোসেন বাদী হয়ে একটি সুয়োমুটো মামলা দায়ের করে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মৃত্যুর কারণ জানতে আদালতের নির্দেশে মরদেহটি উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।

পঞ্চগড় পুলিশ সুপার (এসপি) এসএম সিরাজুর হুদা মরদেহ উত্তোলনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, যেহেতু নিহতের পরিবার কোন মামলা দায়ের করেনি, তাই পুলিশ বাদি হয়ে মামলা দায়ের করে। মৃত্যুর কারণ জানতে মরদেহ উত্তোলন করা হয়।

জানা যায়, নিহত আরিফ পঞ্চগড়ের মসজিদ পাড়া এলাকার ফরমান আলীর ছেলে।

এর আগে গত তিন মার্চ শুক্রবার পঞ্চগড়ের আহমদ নগর এলাকায় কাদিয়ানীদের সালনা জলসা বন্ধের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে মুসল্লিরা। এ সময় মুসল্লিরা উত্তেজিত হয়ে পড়লে পুলিশ তাদের মিছিলে বাধা দেয়। এতে প্রায় ১০ ঘণ্টা ধরে দফায় দফায় চলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। একটি উত্তেজনা পরিবেশ বিরাজ করলে এতে দুজন নিহত এবং পুলিশসহ অন্তত অর্ধশতাধিক আহত হয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ