1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৭:৫৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
নিখোঁজ হওয়ার ৮ দিন পর মিলল এমপি আনোয়ারুল আজিম আনারের মরদেহ গোপালগঞ্জে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ গোপালগঞ্জে আলাদা সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল দুই জনের-আহত ০২ গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কলেজ শিক্ষকসহ প্রাণ হারালো ৪জন শ্রীবরদীতে মোটরসাইকেল ও অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই যুবক নিহত, আহত ১ নো হেলমেট নো ফুয়েল সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে ট্রাফিক পুলিশের অভিযান গলাচিপায় ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে প্রভাবশালীদের বাঁধা, দ্বারে দ্বারে ঘুরছে জমির মালিক, রাজশাহীতে ২০ বোতল ফেন্সিডিল ও ২০০ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেফতার ১ জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন সাবেক এমপিকে গোপালগঞ্জের রূপালী ব্যাংকে  গ্রাহক হয়রানি

গজারিয়া ভবেরচর জেনারেল হাসপাতালে অপচিকিৎসায় নবজাতক মৃত্যু’র অভিযোগ

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪
  • ১১৫ ০৫ বার পঠিত

ওসমান গনি, মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ মুন্সীগঞ্জ গজারিয়ায় উপজেলার ভবেরচর জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের  অপচিকিৎসার কারনে নবজাতক  শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল )সকাল ১১ঘটিকায় উপজেলার ভবেরচর জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে নরমাল ডেলিভারি করানোর সময় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জন্য প্রসূতির স্বজনরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে দায়ী করেছেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাসপাতালে উত্তেজনা দেখা যায়।

মারা যাওয়া নবজাতক উপজেলার  ইমামপুর ইউনিয়নের বড় কালিপুরা গ্রামের বাসিন্দা আমির হাসানের ছেলে বলে জানান যায়।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রসুতি মমতাজ  আক্তারের শনিবার সকালে ৯ টায় তার প্রসব ব্যথা হলে গজারিয়া  উপজেলা ভবেরচর জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে ভর্তি করান,
সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে ডাক্তার ছাড়াই নার্সদের মাধ্যমে ঐ প্রসূতির নরমাল ডেলিভারির চেষ্টা   করতে গিয়ে নবজাতক ঐ শিশুকে মেরে ফেলে।জানা যায়,ডেলিভারির সময় নবজাতক শিশুর মাথা আটকে যায়,এ সময় প্রচুর রক্তক্ষরণ হতে থাকলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিক ঐ প্রসুতিকে ঢাকা নিয়ে যেতে বলে দ্রুত অ্যাম্বুলেন্স এর ব্যবস্থা করে ঢাকা মেডিকেলের রেফার করে।

নিহতের নবজাতকের বাবা আমির হাসান জানান, চিকিৎসায় অবহেলার কারণে আমার বাচ্চার মৃত্যু হয়েছে।ভর্তি নেওয়ার পর থেকেই নানা ধরনের অবহেলা করতে থাকেন হাসপাতালের লোকজন।
ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে নেওয়ার জন্য রওনা হলে পথের মধ্যে প্রচুর রক্তক্ষনে ও ব্যথার যন্ত্রণায় কাথর হলে কো- অ্যাক্টিভ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক আমার বাচ্চাকে মৃত ঘোষণা করেন।এ বিষয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বলতে গেলে তাঁরা আমাকে হুমকি দিচ্ছেন।

এদিকে ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহতের নবজাতকের  আত্মীয়-স্বজন হাসপাতালে জড়ো হলে উত্তেজনা দেখা দেয়।

এ বিষয়ে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সুমাইয়া ইয়াকুব বলেন, বিষয়টি শুনেছি,তবে ভুক্তভোগী কেউ অভিযোগ দেয়নি, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গজারিয়া থানার অফিসার ইন চার্জ মো:রাজিব খাঁন বলেন,এ বিষয়ে একটা অভিযোগ পেয়েছি, যাচাই বাছাই পূর্বক আইন গত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ