1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১১:২২ পূর্বাহ্ন

তানোরে আওয়ামী লীগের প্রস্ত্ততি সভা

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৪ জুলাই, ২০২৩
  • ১৫১ ০৫ বার পঠিত

আলিফ হোসেন, তানোর -ঃ- রাজশাহীর তানোরের কলমা ইউনিয়ন (ইউপি) আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন সফল করার লক্ষে ইউপি আওয়ামী লীগের প্রস্ততি সভা আয়োজন করা হয়েছে। জানা গেছে, ৪ জুলাই মঙ্গলবার ইউপি আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দরগাডাঙা স্কুল এ্যান্ড কলেজ মাঠে সম্মেলন প্রস্ততি সভা আয়োজন করা হয়। 
এদিন প্রস্ততি সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাইনুল ইসলাম স্বপন, সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রদিপ সরকার, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান আবু বাক্কার ও সোনীয়া সরদার, কামারগাঁ ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বি ফরহাদ মিঞা, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক রাম কমল সাহা, উপজেলা যুবলীগের সম্পাদক জুবায়ের ইসলাম, প্রধান জিল্লুর রহমান, প্রভাষক মুন্সেফ আলী, আবুল বাসার সুজন, জেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মাহাবুর রহমান মাহাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক শামসুল ইসলাম, সদস্য সচিব রামিল হাসান সুইট, উপজেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি তাসাদ্দেক চৌধুরী লিটন,সম্পাদক সাদেকুল ইসলাম সাদেক,  কলমা ইউপি স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি তানভির রেজা ও সম্পাদক আপেলপ্রমুখ। প্রস্ত্ততি সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাংসদ প্রতিনিধি ও উপজেলা চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না। 
আগামি ১১ জুলাই মঙ্গলবার দরগাডাঙা স্কুল এ্যান্ড কলেজ মাঠে কলমা ইউপি আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন 
অনুষ্ঠিত হবে।
এদিকে সম্মেলন প্রস্ত্ততি সভায় নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে তা ছোটোখাটো জনসভায় রুপ নেয়। দীর্ঘদিন পর আওয়ামী লীগের কোনো দলীয় কর্মসূচিতে নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের এমন স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখা গেছে। প্রধান বক্তা উপস্থিত নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেন,
রাজনৈতিক লক্ষ্যে পৌচ্ছাতে এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগের কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, বিশ্ব পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে নিজেদের অস্থিত্ব রক্ষায় যেমন ঐক্যবদ্ধ বাংলাদেশের প্রয়োজন: তেমনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের প্রতীক গণতন্ত্রের ধারক-বাহক আওয়ামী লীগকেও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। অন্যথায় আওয়ামী লীগের পক্ষে তার রাজনৈতিক লক্ষ্যে পৌচ্ছা ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা কঠিন হবে। 
তিনি বলেন, কেবল মুখে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের কথা বললেই দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক দর্শন কি, অর্থনৈতিক কর্মসূচী তথা উৎপাদন, উন্নয়ন, বিনিয়োগ-কর্মসংস্থান এবং আধিপত্যবাদ-সম্প্রসারণবাদ কি ও তার ক্ষতির দিকগুলো সম্পর্কে স্পষ্ট বক্তব্য থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন, আমরা যে স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের নেই প্রশ্নে আপোষহীণ সে বিষয়টি সকল নেতাকর্মীদের হৃদয়ে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তা ছড়িয়ে দিতে হবে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মাঝে। বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কাছ থেকে আমরা কি পেয়েছি। তিনি বলেন, আমরা কেন আওয়ামী লীগ করি, অন্যদলের সঙ্গে আওয়ামী লীগের পার্থক্য কি, মানুষ কেন আওয়ামী লীগকে ভালোবাসে ও সমর্থন করে-এসব বিষয়ে তৃণমুল পর্যায় থেকে শুরু করে সকল নেতাকর্মীদের মাঝে সুস্পষ্ট ধারণা তথা দিকনির্দেশনা থাকতে হবে। তাহলে তারা দলের প্রতি আরও নিবেদিতপ্রাণ হয়ে কাজ করতে পারবেন। তিনি প্রতিটি নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, সকলকে নিজ নিজ জায়গা থেকে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন ও অর্জনের চিত্র তুলে ধরে প্রচারণা করতে হবে। তিনি বলেন, দূর্দীনে যারা দলের সাংগঠনিক কর্মকান্ড গতিশীল করতে ভূমিকা রেখেছেন তাদের এবং প্রবীণ-ত্যাগী ও নিবেদিতপ্রাণ নেতাকর্মীদের আবারো সক্রিয়-মূল্যায়ন করতে হবে এবং আগামিতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে তাহলে নৌকার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না ইনশাল্লাহ্। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ দেশের প্রাচীনতম, সর্ববৃহত ও জনপ্রিয় গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল, এখানে নেতাকর্মীর কোনো অভাব নাই, নেতৃত্ব নিয়ে প্রতিযোগীতা রয়েছে সেটা ঠিক তবে কখানোই তা যেনো দলীয়কোন্দলে রুপ না পায় সেটা লক্ষ্য রাখতে হবে। তিনি বলেন, সকল নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের মনে রাখতে হবে আমরা জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দল করি, কাজেই কোনো নেতার ওপর অভিমান কর, কারো কথায় কস্ট পেয়ে বা বিপদগামী কারো প্রলোভনে পড়ে নৌকার বিকল্প ভাবতে পারি না, আমরা আগেও নৌকায় ছিলাম, এখানো আছি এবং আগামিতেও থাকবো সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকার বিজয়ে কাজ করবো ইনশাল্লাহ্। এদিকে স্থানীয় রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহলের ভাষ্য, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কর্মসূচি সফল করতে ময়নার কোনো বিকল্প নাই। তার উপস্থিতিতে নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের এমন স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ তারই প্রমান করে। কাজেই যারা ময়নাকে মাইনাস করে রাজনীতি করার স্বপ্ন দেখেন তাদের এখান থেকে শিক্ষা গ্রহণ করা উচিৎ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ