1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

তিস্তার পানি বিপদসীমার ওপরে পানি বন্দি নীলফামারীর ৮ হাজার পরিবার

  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২০ আগস্ট, ২০২১
  • ২৫১ ০৫ বার পঠিত

তপন দাস, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি -ঃ উজানের পাহাড়ি ঢালে নেমে আসা পানিতে পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে তিস্তা নদীরতীরবর্তী নীলফামারীর ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার ১০ ইউনিয়নের প্রায় সাড়ে ৮ হাজার অসহায় পরিবার।

বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড ( পাউবো) ডিমলার ডালিয়া ডিভিশনের বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও সতর্ককরণ কেন্দ্রে এক তথ্য মতে জানা যায় যে ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে অতি বৃষ্টির জন্য ভারতে বন্যার সৃষ্টি হওয়ার কারনে তারা সিকিমের পানি বাঁধের সবগেট খুলে দেওয়ার কারনে বাংলাদেশের তিস্তা নদীর পানি অতিরিক্ত হারে বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে আর ব্যারেজকে সুরখিত রাখার জন্য ব্যারেজের ৪৪ টি গেট খুলে দেয়া হয়েছে।

ডিমলার তিস্তা নদীর তীরবর্তী ঝুনাগাছ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব আমিনুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমার ইউনিয়নের তিস্তার বুকচিরে গড়ে ওঠা ছাতুনামা, ভেন্ডাবাড়ি ও কেল্লাবাড়ি চরগ্রামের প্রায় ৭ শত পরিবার পানি বন্দী হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে ।

এদিকে তিস্তার বুকচিরে গড়ে ওঠা খলিশা চাপানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব আতাউর রহমান সরকার জানায় এবার পাচ দফায় বন্যার কারনে তার ইউনিয়নের বাইশপুকুর ও ছোট খাতার ৩০০ পরিবার পানি বন্দী হয়ে গৃহপালিত পশু পাখি ও বাচ্চা দের কে নিয়ে ব্যারেজের কলম্বিয়া বাধে আশ্রয় নিয়েছে ।
এবিষয়ে কয়েকজন পানিবন্দী মানুষের সাথে কথা হলে তারা সবাই একটি কথায় বলেন যে গ্রাম রক্ষার জন্য সরকার বেরিবাধ গুলোকে ভালো করে ঠিক করে দেয়।

এদিকে ডালিয়া ব্যারেজের নির্বাহি প্রকৌশলী জনাব আসফাউদৌলা জানান যে ভারতে বৃষ্টি পাতের কারনে ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার কিছু নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে তবে আমরা তা পর্যবেক্ষণ ও মনিটরিং করছি।

এদিকে ডিমলা উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেজবাহুল আলম জানান যে আমরা আজ দুপুরে ডিমলার ঝুনাগাছ ইউনিয়নের পানি বন্দী ২৫০ টি পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরন করছি আর পানি বৃদ্ধির কারনে যদি কোথাও খাদ্যের প্রয়োজন হয় তাহলে জনপ্রতিনিধিরা যদি আমাদের কে অবহিত করে তাহলে আমরা ব্যবস্হা নিব।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ