1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:০৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
নাগেশ্বরীতে ১৮ টি সংখ্যালঘু পরিবার সরকারের সকল সুবিধা থেকে বঞ্চিত। বাস্তবায়ন হয়নি, মন্দিরের সংস্কার কাজ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ভারত সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ছুরিঘাতে আহত  এক যুবক উদ্ধার আখাউড়ায় তিন টিকেট কালোবাজারিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা কক্সবাজারে এক তরুণীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার কোটচাঁদপুর রাতের আঁধারে এতিম খানায় কম্বল হাতে ইউএনও খান মাসুম বিল্লাহ কোটচাঁদপুর পৌর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নের প্রতিবাদে পৌর মেয়রের সংবাদ সম্মেলন পঞ্চগড়ে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে সার্বক্ষনিক স্বাভাবিক প্রসব সেবা জোরদার করণ বিষয়ক দিনব্যাপী কর্মশালা অনূষ্ঠিত খোঁজ মিললো নিখোঁজ প্রার্থী আসিফের তানোরে মটর মালিকের দৌরাত্ম্য কৃষকেরা অতিষ্ঠ গোদাগাড়ীতে শেখ কামাল আন্ত: স্কুল ও মাদ্রাসা অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতার শুভ উদ্বোধন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাধ্যমিকে ৭০, প্রাথমিকে ১৩ ভাগ বই এসেছে

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৫৩ ০৫ বার পঠিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি -ঃ- শিক্ষার্থীদের কারো হাতে দু’টি, কাউকে দেওয়া হলো তিনটি বই। তবুও খুশি তারা। নতুন বইয়ের ঘ্রাণ নিতে পারাটাই যেন আলাদা আনন্দ। কিছু বই তুলে দিতে পেরে সংশ্লিষ্টরাও বেশ খুশি। সবাই আশায় আছেন এ মাসের মধ্যেই বই পাওয়ার।


সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার জন্য মাধ্যমিকের ৭০ ভাগ ও প্রাথমিকের ১৩ ভাগ বই এসেছে। জেলায় প্রাথমিক পর্যায়ে মোট চার লাখ ৯২ হাজার ৮০১ ও প্রাক প্রাথমিকের ৭৭ হাজার ৬শ ৫৬ জন শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হবে। মাধ্যমিক পর্যায়ে এক লাখ ৯৭ হাজার ৬৫২ জন শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দেওয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে নতুন বছরের প্রথম দিন রবিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরসহ সর্বত্র বই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেলা ১১টায় শহরের গভ. মডেল গার্লস হাই স্কুলে আয়োজিত বই উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন জেলা প্রশাসক মো. শাহগীর আলম। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. জিয়াউল হক মীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বই উৎসবে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মো. শাখাওয়াত হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মোজাম্মেল হক রেজা, জেলা শিক্ষা অফিসার মো. জুলফিকার হোসেন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার খোরশেদ আলম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন, অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরিদা নাজমীন, মডেল গভ. মডেল গার্লস হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক (অব.) পারভীন আক্তার । 

নিয়াজ মুহম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ের  নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী শিফা চৌধুরী জানায়, বছরের প্রথম দিনে নতুন বই পেয়ে খুশি। ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেসিডেন্সিয়াল স্কুুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী ইরফানুল হক জানান, বছর শুরুর দিনেই নতুন বইয়ের ঘ্রাণ আর নতুন ক্লাশে যাওয়ার সুযোগ করে দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীসহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. খোরশেদ আলম বলেন, ‘জেলায় প্রাথমিক পর্যায়ে ২৪ লাখ তিন হাজার ৫৭৪টি বইয়ের চাহিদার মধ্যে এখন পর্যন্ত  প্রায় ১৩ ভাগ বই পৌঁছেছে।’ জেলা শিক্ষা অফিসার মো. জুলফিকার হোসেন বলেন, ‘এ বছর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় মাধ্যমিক পর্যায়ের এক লাখ ৯৭ হাজার ৬৫২ জন শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দেওয়া হবে। এখন পর্যন্ত ৭০ ভাগ বই চলে এসেছে।’ কিছুদিনের মধ্যে বাকি বই পাওয়া যাবে বলে তাঁরা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ