1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংস্থা ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি (এনপিএস) খুলনা বিভাগ লাকসাম আজগরা ইউপি আ’স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সমাবেশ ও পরিচিত সভা অনুষ্ঠিত গাজীপুরে দুদকের গণশুনানি অনুষ্ঠিত বিরামপুরে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ বগুড়ায় দুদিনব্যাপী জামাই মেলা: বড় মাছ কেনার লড়াইয়ে জামাই-শ্বশুর অভিযাত্রিক সাহিত্য ও সংস্কৃতি সংসদ-এর ২২৭২ তম সাপ্তাহিক সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত প্রশাসনের বন্ধ করা অবৈধ ইটভাটা ফের চালু তানোরে কৃষক দলের আহবায়ক কমিটি গঠন তানোরের দুই মেয়র গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপণে নাগেশ্বরীতে ১৮ টি সংখ্যালঘু পরিবার সরকারের সকল সুবিধা থেকে বঞ্চিত। বাস্তবায়ন হয়নি, মন্দিরের সংস্কার কাজ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মালিককে মারধরের জেরে অ্যাম্বুলেন্স চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা, চালকদের কর্মবিরতি

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৩৭ ০৫ বার পঠিত

মইনুল ভূইয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি -ঃ-
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অ্যাম্বুলেন্সের এক মালিককে মারধরের জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য অ্যাম্বুলেন্স চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন চালকরা। শনিবার বিকেল পাঁচটা থেকে বাংলাদেশ অ্যাম্বুলেন্স মালিক কল্যান সমিতির ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখা এই ঘোষণা দেন।
এর আগে অ্যাম্বুলেন্সে রোগী বহন নিয়ে চাঁদা না দেওয়ায়  জহিরুল ইসলাম ওরফে জুম্মান নামে একজনের নির্দেশে তার অনুসারীরা বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের প্রধান ফটক সংলগ্ন এলাকায় এক চালককে গালিগালাজসহ অ্যাম্বুলেন্স মালিক হাসেম মিয়াকে মারধর করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এঘটনার পরই অ্যাম্বুলেন্স চালকরা রোগী বহন থেকে কর্মবিরতির ঘোষণা দেন।
হাসেম আখাউড়া উপজেলার মসজিদপাড়া এলাকার সহিদ মিয়ার ছেলে ও অ্যাম্বুলেন্স কল্যান মালিক সমিতির সহসাংগঠনিক সম্পাদক ।তিনি শহরের মুন্সেফপাড়ায় ভাড়া বাসায় থাকেন। অভিযুক্ত জহিরুল ইসলাম ওরফে জুম্মান জেলা শহরের কাজীপাড়ার বাসিন্দা ও জেলা সৈনিক লীগের সভাপতি।
অভিযুক্ত জহিরুল ইসলাম ওরফে জুম্মান জানান, মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি।ঢাকা মহানগর অ্যাম্বুলেন্স সমবায় সমিতি লিমিটেড নামে আরেকটি কমিটি রয়েছে। তারা নতুন পাল্টা একটি কমিটি করেছে।এঘটনার পরও আমি দুটি অ্যাম্বুলেন্সে রোগী ঢাকায় পাঠিয়েছি। জেলায় সরকারি- বেসরকারিসহ ১০টি অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। রোগী পরিবহনে কোনো সংকট হওয়ার কথা না।
আহত হাসেম মিয়া ও অ্যাম্বুলেন্স মালিক কল্যান সমিতি সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বেলা ১২টার দিকে গুরুতর অসুস্থ এক রোগীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার জন্য ঈসমাইল মিয়া নামের এক চালক হাসেমের অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে যান।হাসপাতালের জরুরী বিভাগের সামনে গিয়ে অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে রোগীর জন্য অপেক্ষা করেন ঈসমাইল। সেসময় জহিরুল ইসলাম ওরফে জুম্মান সেখানে পৌঁছে চালক ঈসমাইলকে গালিগালাজ করেন।
রোগী নিয়ে ঢাকায় যাওয়ার আগে মালিক হাসেমকে বিষয়টি অবগত করেন ঈসমাইল।বেলা সাড়ে ১২টার দিকে হাসপাতালের প্রধান ফটক সংলগ্ন পুলিশ বক্স ও বটগাছের নিচে যান হাসেম। সেময় জহিরুলের নির্দেশে তার লোকজন অতর্কিত হামলা চালিয়ে হাসেমকে বেধড়ক মারধর করেন।এতে হাসেম বাম চোখের নিচে, মাথার পেছনে ও পিছে আঘাত পান। সেখান থেকে কোনো মতে রক্ষা পান তিনি। দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া
জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন তিনি। পরে অ্যাম্বুলেন্স চালক ও মালিকদের নিয়ে বিষয়টি সদর থানা পুলিশকে অবগত করেন।
আহত হাসেম মিয়া বলেন, জহিরুল ওরফে জুম্মান প্রতি অ্যাম্বুলেন্স থেকে ৫০০ থেকে এক হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে থাকেন। ঢাকার কোনো অ্যাম্বুলেন্স আসলে নেন প্রায় তিন হাজার টাকা। টাকা দিলে হাসপাতালের ভেতরে অ্যাম্বুলেন্স ঢুকানো যায়। না দিলে তার অত্যাচার ও নির্যাতনের শিকার হতে হয়। তিনি বলেন, চাঁদা না দিলে জহিরুল চালকদের বকাবকি করেন। তাই
বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স চালকরা কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন।তিন এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।
সমিতির উপদেষ্টা রামচন্দ্র সরকার ও সাধারণ সম্পাদক জহির মিয়া বলেন, জেলায় বেসরকারি ৫৩টি অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে।যতক্ষণ পর্যন্ত চাঁদাবাজের বিচার না হবে ও সদর হাসপাতাল থেকে চাঁদাবাজ মুক্ত না হবে আমরা অ্যাম্বুলেন্স চালাব না।সরকারি ও বেরসকারি হাসপাতাল থেকে কোনো রোগী অ্যাম্বুলেন্সে বহন করব না। এই ঘটনার বিচান না হওয়া পর্যন্ত চলবে
কর্মবিরতি। তারা জানান, বিকেল থেকে এখন পর্যন্ত তিনটি অ্যাম্বুলেন্স চেয়েছে রোগীর স্বজনরা।কিন্তু আমরা যায়নি।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম বলেন, জহিরুল ইসলাম ওরফে জুম্মানের ইন্ধনে এমন হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। আহত ব্যক্তিকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছি।হাসপাতালের সিসি ক্যামেরা ফুটেজ দেখে
ঘটনাটি তদন্তের জন্য এসআই প্রতাপকে নির্দেশ দিয়েছি। কর্মবিরতির বিষয়টিজানা নেই।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ