1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৩২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
গাজীপুরে দুদকের গণশুনানি অনুষ্ঠিত বিরামপুরে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ বগুড়ায় দুদিনব্যাপী জামাই মেলা: বড় মাছ কেনার লড়াইয়ে জামাই-শ্বশুর অভিযাত্রিক সাহিত্য ও সংস্কৃতি সংসদ-এর ২২৭২ তম সাপ্তাহিক সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত প্রশাসনের বন্ধ করা অবৈধ ইটভাটা ফের চালু তানোরে কৃষক দলের আহবায়ক কমিটি গঠন তানোরের দুই মেয়র গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপণে নাগেশ্বরীতে ১৮ টি সংখ্যালঘু পরিবার সরকারের সকল সুবিধা থেকে বঞ্চিত। বাস্তবায়ন হয়নি, মন্দিরের সংস্কার কাজ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ভারত সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ছুরিঘাতে আহত  এক যুবক উদ্ধার আখাউড়ায় তিন টিকেট কালোবাজারিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

চকরিয়ায় বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের হাতির মৃত্যু দিনভর ছুটাছুটিও করেছিলেন সৈকত বাহাদুর

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২২
  • ৩৫ ০৫ বার পঠিত

এ,কে,এম, বেলাল উদ্দিন, চকরিয়া -ঃ- চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্কে এক পুরুষ হাতির মৃত্যু হয়েছে। ৩২ বছর বয়সী হাতিটির নাম ‘সৈকত বাহাদুর’। সোমবার বিকেলে পার্কের হাতির গোদা নামক বেষ্টনীর ভেতরে এটি মারা গেছে।
এদিন রাতে ময়নাতদন্ত শেষে হাতিটি মাটিতে পুঁতে ফেলা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাজহারুল ইসলাম। এ ঘটনায় তিনি বাদি হয়ে চকরিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি রুজু করেছেন।

পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘সোমবার সারা দিন স্বাভাবিক ছিল হাতি সৈকত বাহাদুর। বিকেল ৪টার দিকে প্রতিদিনের মতো কলাগাছ ও মিষ্টি কুমড়া খেয়েছিল। খাবার গ্রহণের পর হঠাৎ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এর পরপরই পার্কের চিকিৎসক বেষ্টনীতে গিয়ে শরীর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখতে পান হাতি সৈকত বাহাদুর মারা গেছে।’

সাফারি পার্কের ভেটেরিনারি চিকিৎসক ডা. হাতেম সাজ্জাত মো. জুলকার নাইনের বরাত দিয়ে মাজহারুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে হাতিটির মৃত্যু হতে পারে। উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ও পার্কের ভেটেরিনারি চিকিৎসকের নেতৃত্বে একটি দল ওই হাতির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করার পর এটিকে মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে । তার আগে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেপি দেওয়ান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

হাতি সৈকত বাহাদুরের মৃত্যুর কারণ উদ্ঘাটন করতে মাটি চাপা দেওয়া আগে শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গপ্রতঙ্গের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকার কেন্দ্রীয় রোগ অনুসন্ধান গবেষণাগারে পাঠানো হয়েছে।

হাতিটির লালনপালনকারী মাহুত মোহাম্মদ ফারুক হোসেন বলেন, ‘হাতি সৈকত বাহাদুরকে প্রতিদিনের মতো সোমবার বিকেলে চারটি কলাগাছ ও চারটি মিষ্টিকুমড়া খেতে দেওয়া হয়। স্বাভাবিক আহার গ্রহণের পর পানি পান করে হঠাৎ মাটিতে ঢলে পড়ে।

তিনি বলেন, প্রথমে মনে করেছিলাম, হাতিটি খাবার খেয়ে বিশ্রাম নিচ্ছিল। মিনিট খানেক পর দেখি মাথাও মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করলে দ্রুত পার্কের ভেটেরিনারি চিকিৎসক দেখে হাতি সৈকত বাহাদুরের মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন।’

চকরিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাজহারুল ইসলাম বলেন, পার্কে মোট ছয়টি হাতি রয়েছে। তার মধ্যে দুটি পুরুষ এবং চারটি মাদি হাতি। সৈকত বাহাদুর মারা যাওয়া পার্কে বর্তমানে পাঁচটি হাতি রয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ