1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
চকরিয়ায় সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদানে শ্রেষ্ঠ জয়িতা ২২ পুরস্কার পেলেন জিনিয়া মুছা আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস উদযাপন উপলক্ষে চকরিয়ায় মানববন্ধন ও আলোচনা রংপুরে সাহিত্য সংস্কৃতি সামাজিক সংগঠন ‘ফিরেদেখা আয়োজনে রোকেয়ার ভাস্কর্যে পুষ্পমাল্য অর্পণ ইউএনও সহ পাইকগাছার ৫ নারী পেলন জয়িতা সম্মাননা বাগাতিপাড়ায় আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালিত সরকারী সুবিধা বঞ্চিত মহাছেনা’র জীবন হাতে হাত রেখে সরকারি কর্মকর্তা, শিশু থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ ‘না’ বললো দুর্নীতিকে ‘বিজিবি -বিএসএফ এর সীমান্ত বৈঠক ফলপ্রসু হয়েছে’  আদমদীঘিতে নৈশপ্রহরীর ২য় স্ত্রীর আত্মহত্যা গোদাগাড়ীতে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও ২০২২ উদযাপন উপলক্ষে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা

পাঠকদের মনে প্রাণে লামার উদীয়মান কবি মোঃ এমরান

  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৭ ০৫ বার পঠিত

বিশেষ সংবাদদাতা -ঃ- ২০০০ সালের ১২ জানুয়ারি বান্দরবান জেলার লামা উপজেলার, ইয়াংছা,পোয়াংবাড়ী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত ও আলোকিত মুসলিম পরিবারে তার জন্ম। দেশের প্রতি রয়েছে অগাধ ভালোবাসা কবি মোঃ এমরানের। কবি মোঃ এমরানের লেখায় কবিত্ব শক্তির যে ঐশী ব্যঞ্জনা ধ্বনিত হয় তা সাধারণ লেখকের পক্ষে ধরে রাখা কষ্টসাধ্য। তার পরও বলতে হয় তিনি একজন সর্বজনীন কবি। সাধারণ কবিদের সীমানার গণ্ডি পেরিয়ে বৈশ্বিক সীমানায় তার শক্তিশালী কলমকে তিনি মেলে ধরেছেন। বাংলাদেশের কবিদের মধ্যে তার অবস্থান হলেও এই অবস্থানের মধ্যে তার কবি প্রতিভা সীমিত নয়। তার সংবেদনশীল কবি মন। অনুভবের পথে হেঁটে হেঁটে ঘুরে বেড়ান নীল দিগন্তের সীমানায়। তার কবিতার চারণভূমি দেখলে মনে হয় তিনি অনুভবের পথে হাঁটতে হাঁটতে বৈরী বাতাসকে জয় করেছেন। শিল্পমনস্কতায়, মননের দৃঢ়তায়, সুরের ইন্দ্রজাল সৃষ্টি করেছেন ।

কপট সময়ের সব মিথ্যা কপটতাকে দূরে রেখে মনের সুষমাকে সর্বত্র ছড়িয়ে দিতে তিনি সক্ষম হয়েছেন। কবি মোঃ এমরান তার মনের সারল্য, সৌন্দর্য ও অনুভবের গভীরতা দিয়ে তিনি বিশ্ব ভুবনকে হাতের মুঠোয় তুলে ধরেছেন। তার লেখায় মা, মানুষ, প্রকৃতি, ধর্ম, নবীপ্রেম,আধ্যাত্মিক সময়োপযোগী ও সচেতনতা সহজেই চোখে পড়ে।

কবি মোঃ এমরান, একজন সাদা মাটা সহজ সরল উদার মনের মানুষ এবং খুবই মিশুক স্বভাবের। বুক ভরা কষ্ট নিয়ে প্রিয়জন হারানোর ব্যথায় ব্যতিত হয়ে দিন রাত পরিশ্রম করে ছুটে চলেছেন কবিতার পিছু। ধীরে ধীরে একটা দুটো করে কবিতা লিখতে লিখতে অগণিত মানুষের মন জয় করে নেন তার হৃদয় ছোঁয়া লিখনীতে। অনলাইনসহ বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় রয়েছে তার অগণিত কবিতা। যে কবিতা গুলো অসংখ্য মানুষের মন কেঁড়ে নেয়।নিজের কষ্ট আর একাকিত্ব প্রিয়জন হারানোর বেদনায় অতলে ডুবে যান কবিতার সাগরে।

বাংলাদেশের লেখক ও পাঠকরা এই লেখকের লেখার জাদুকরী স্পর্শকে ভালোবাসে। ভালোবাসে তার কলমের মোলায়েম স্পর্শ। তার ভাষায় প্রাণের স্পর্শ অনুভব করে। সমস্ত বাংলাদেশের পটভূমি তার কবিতার আঁকে বাঁকে সবুজের গান গায়। কবি মোঃ এমরানের সাহিত্য জগৎ এত বিস্তৃত যে, আমার মতো ক্ষুদ্র পাঠক তার পরিসরকে মূল্যায়ন করা সম্ভব নয়। মাত্র ২৩ বছর বয়সী কবির মনের ভুবন এত রঙের বাহারে শোভাময় এবং বিচিত্র অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ, বাহারি জ্ঞান গরিমায় উজ্জ্বল। মনের তাগিদে এই কবির প্রাণ ঐশ্বর্যকে সবার কাছে তুলে ধরার প্রয়াসে আমার সামান্য প্রচেষ্টা মাত্র। নানান কবিরা তাকে নানান নাম দিয়ে আখ্যায়িত করেছেন, কেউ বলেছেন উদীয়মান কবি, কেউ বলেছেন তরুণ কবি, কেউ বলেছেন ধ্রুবতারা কবি, কেউ বা বলেছেন কবিতাওয়ালা। আমি কবিদের লেখা এই সব উপাধিমালায় যাব না। শুধু আমার উপলব্ধিটুকু বলব- তিনি একজন নীরব সাধক। ক্ষুদ্রতা, নীচতা, সঙ্কীর্ণতা তার কবিতার শরীরে কোথাও চোখে পড়ে না। শিল্পীর চেয়ে শিল্প বড়। আবার শিল্পের চেয়ে মানুষ বড়। তাই আমি বলব কবি মোঃ এমরান, আমরা তার কবিতা পরিমাপ করতে পারি না, কেননা তিনি তার কবিতা থেকেও মহৎ সৃষ্টি।

নিষ্পেষিত মানুষের মুক্তি, দ্রোহের অনির্বাণ শিখা আছে তার কবিতায়। আছে দুঃখ, লাঞ্ছনা, বিপ্লব ও সংগ্রামের কথা। তার সাহিত্যে যেমন মানবপ্রেম আছে, অধ্যাত্ম্যবোধ, ঐতিহ্যবোধ আছে তেমনি ঘৃণাবোধও আছে। তিনি একজন মহৎ কবি। তার ভাব বৈচিত্র্য, বিষয়বস্তু, উপস্থাপনার কলাকৌশল প্রয়োগ পাঠকদের মুগ্ধ করে।

কবি মোঃ এমরান বলেন, আমি কবি হতে আসিনি, বাস্তবতার কাছে পরাজীত হয়ে আমি লিখে যাই সেই কবিতা। বাস্তবতাকে তুলে ধরে লিখার চেষ্টা করছেন একটি বই। প্রিয় শুভাকাঙ্ক্ষী ও দর্শকের উপহার দেয়ার উদ্দেশ্য মানুষের মাঝে সমাজের মাঝে দেশের মাঝে কবি মোঃ এমরান ভালোবাসার অস্তিত্ব স্বরূপ একটি বই রেখে যেতে চান। এবং সেই সুবাদে সকল প্রিয়জনদের কাছে দোয়া ও শুভকামনা প্রার্থী। কবি মোঃ এমরানের স্বপ্ন পূরণে আপনাদের উৎসাহ অনুপ্রেরণা দোয়া ও ভালোবাসা একান্ত কাম্য।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ