1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:১০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
চকরিয়ার সবুজবাগে ড্রেনের পানি চলাচল পথ দখলে নিয়ে রাস্তা নির্মাণ, জনদুর্ভোগের আশঙ্কা খাদের কিনারে যাচ্ছে দেশের অর্থনীতি,এমপি ব্যারিস্টার শামীম পাটোয়ারী কুড়িগ্রামে সংবাদ টিভির কেক কাটার মাধ্যমে পঞ্চম বর্ষে পদার্পণ উদযাপিত হলো বাংলাদেশ প্রিন্টিং মাষ্টার এসোসিয়েশন এর প্রথম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন মসজিদে নামাজ পড়াতে গিয়ে ইমামের সাইকেল চুরি রাংগাঝিরি মোঃ ইউনুছ চৌধুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত চৌদ্দগ্রামে ব্যাটমিন্টন খেলাকে কেন্দ্র করে কিশোর গ্যাংয়ের ২ গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ ছাতকে খেলাফত মজলিসের আলোচনা সভা ও দোওয়া মাহফিল রাজশাহী কারাগারে গোদাগাড়ীর মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এক আসামির ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে নবাব ফয়জুন্নেছার ওয়াকফকৃত সম্পত্তি রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

বিজয়নগরে মানববন্ধন, সংবাদ সম্মেলন একের পর এক ভুয়া পরোয়ানা ও মামলায় হয়রানির অভিযোগ

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৪ ০৫ বার পঠিত

মইনুল ভূইয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি-ঃ- একের পর এক ভুয়া গ্রেপ্তারি পরোয়ানায় (ওয়ারেন্টে) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরের

এক ব্যক্তিকে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বুধবার ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর পক্ষে মানববন্ধন ও পরিবারের পক্ষে সংবাদ সম্মেলন করা হয়।
বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার আউলিয়া বাজারে মানববন্ধন করা হয়। পরে বেলা ১২টার দিকে নিজ বাড়ি উপজেলার খাটিংগা গ্রামের মো. মনির উদ্দিন খান।


এলাকাবাসী ও মনির খানের পরিবারিক সূত্র জানায়, প্রতিবেশি আবু তাহের মিয়ার
সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে মনির খানের। বিষয়টি নিয়ে আদালতে মামলা চলমান।
এ অবস্থায় মনির খানকে একের পর এক মামলা দিয়ে ও আদালতের ভুয়া পরোয়ানা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। ঢাকার যাত্রাবাড়ি থানার দুই মামলার নম্বর দিয়ে ভুয়া গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দিয়ে পুলিশের মাধ্যমে হয়রানির চেষ্টা করা হয়। পরোয়ানা নিয়ে ডিবি পুলিশ সেজে বাড়িতে এসে টাকাও নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় আদালতে মামলা চলছে। তবে মামলার বিষয়েও নানাভাবে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করা হচ্ছে।
মনির উদ্দিন জানান, তিনি ও পরিবারকে মামলা দিয়ে এবং ভুয়া পরোয়ানা দিয়ে
হয়রানি করা হচ্ছে। তিনি এতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ও অশান্তির মধ্যে দিন
কাটাচ্ছেন। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তিনি দাবি জানান।
তিনি বলেন, ‘একবার ডিবি পুলিশ সেজে পরোয়ানা নিয়ে আমার কাছে আসে। পরে আমি যে মামলায় ওয়ারেন্ট দেখানো হয় সেই মামলায় যে আমার নাম নেই বা কোনো
সম্পৃক্ততা নেই এর কাগজপত্র দেখালে টাকা দিতে বলে। তখন টাকা দিয়েই আমি
রক্ষা পাই।’
তবে আবু তাহের এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ‘যে জায়গা নিয়ে
ঝামেলা সেটির কাগজ দেখাতে পারছেন না মনির উদ্দিন। এ কারণে মিথ্যা অভিযোগ করছেন। ভুয়া পরোয়ানা কিভাবে এলো তাও আমি জানি না। এসবের সঙ্গে আমার কোনো ধরণের সম্পৃক্ততা নেই।’

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ