1. crimeletter24@gmail.com : crimelet_crimelet :
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৪৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
রংপুরে সাহিত্য সংস্কৃতি সামাজিক সংগঠন ‘ফিরেদেখা আয়োজনে রোকেয়ার ভাস্কর্যে পুষ্পমাল্য অর্পণ ইউএনও সহ পাইকগাছার ৫ নারী পেলন জয়িতা সম্মাননা বাগাতিপাড়ায় আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালিত সরকারী সুবিধা বঞ্চিত মহাছেনা’র জীবন হাতে হাত রেখে সরকারি কর্মকর্তা, শিশু থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ ‘না’ বললো দুর্নীতিকে ‘বিজিবি -বিএসএফ এর সীমান্ত বৈঠক ফলপ্রসু হয়েছে’  আদমদীঘিতে নৈশপ্রহরীর ২য় স্ত্রীর আত্মহত্যা গোদাগাড়ীতে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও ২০২২ উদযাপন উপলক্ষে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা পাকুন্দিয়ায় আন্তর্জাতিক দুর্নীতি দিবস পালিত অভিযাত্রিক সাহিত্য ও সংস্কৃতি সংসদ এর ২২৬৪তম সাপ্তাহিক সাহিত্য আসর

নরসিংদীর বেলাবতে কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ, তিনজন গ্রেপ্তার

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২২
  • ৫৫ ০৫ বার পঠিত

এস আলম, নরসিংদী -ঃ- নরসিংদীর বেলাবতে কিশোরীকে ঘরে আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় সোমবার থানায় লিখিত অভিযোগ করা হলে রাতেই ধর্ষণে সহায়তাকারী স্বামী-স্ত্রীসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর আগে রোববার বিকালে উপজেলার নারায়ণপুর বাজারের একটি ভাড়া বাসায় এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।
বেলাব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ তানভীর আহমেদ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- রায়পুরা উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের পাহাড়কান্দি গ্রামের মোঃ খোরশেদ আলম, তার স্ত্রী জুয়েনা আক্তার ওরফে মায়া সরকার ও একই এলাকার মৃত মোসলেহ উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ আলী (৪০)। একই এলাকার ছাদেক মিয়ার ছেলে সোহরাব হোসেন (৪০) নামের অপর এক আসামী পলাতক রয়েছে।
মামলার বিবরণ ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, রোববার একটি এমব্রয়ডারি কারখানার ১৫ বছর বয়সী কিশোরী শ্রমিক বান্ধবীর বাড়ি থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে মোঃ খোরশেদ আলমের স্ত্রী জুয়েনা আক্তার ওরফে মায়া সরকার তাকে আরও ভালো কাজের প্রলোভন দেখায়। এসময় ওই কিশোরীকে নারায়ণপুর গরু বাজারের দক্ষিণ পাশে অবস্থিত তার ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। পরে ওই বাসায় কিশোরীকে আটকে রেখে ঘরের দরজা বন্ধ করে জুয়েনা ও তার স্বামী খোরশেদ আলম চলে যায়। এক পর্যায়ে মোহাম্মদ আলী এবং সোহরাব হোসেন (৪০) ওই কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এই ঘটনার পর নির্যাতিতা কিশোরী চিৎকার শুরু করলে জুয়েনা আক্তার তাকে ঘটনাটি কাউকে না জানানোর অনুরোধ করে। পরে ঘটনাটি পার্শ্ববর্তী লোকদের জানালে তারা জুয়েনা ও তার স্বামী খোরশেদ আলমকে আটক করে বেলাব থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ অভিযুক্ত স্বামী-স্ত্রীকে আটক ও কিশোরীকে উদ্ধার করেন। পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন ওই দম্পত্তি।
এই ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলী, সোহরাব হোসেন, জুয়েনা আক্তার ও তার স্বামী খোরশেদ আলমকে আসামী করে বেলাব থানায় মামলা করেন।
বেলাব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ তানভীর আহমেদ বলেন, এই মামলায় ৪ আসামীর মধ্যে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। পলাতক অপর আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। নির্যাতিতা কিশোরীর ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ